রাণী ভবানী সরকারি মহিলা কলেজ

উত্তরবঙ্গের প্রবেশ দ্বার বনলতা সেনের নাটোরে প্রতিষ্ঠিত রাণী ভবানী সরকারি মহিলা কলেজ একটি আর্দশ স্থানীয় এবং ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। অর্ধ বঙ্গেশ্বরী নাটোর রাজ্যের জমিদার মহারাণী ভবানীকে সম্মান প্রদর্শন করে তাঁরই নামানুসারে ১৯৭৩ সালে নাটোরে প্রতিষ্ঠিত হয় রাণীভবানী মহিলা কলেজ। ১৯৮৯ সালে জাতীয় করণের পর কলেজটির নামকরণ হয় রাণীভবানী সরকারি মহিলা কলেজ, নাটোর। ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ প্রতিষ্ঠানটি নারী শিক্ষা বিস্তারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। নানা প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও চলছে শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নের নানাবিধ-চেষ্টা।

শিক্ষার উদ্দেশ্য জ্ঞানার্জন,আর জ্ঞানার্জনের মূল উদ্দেশ্যই হলো প্রকৃতি তথা পৃথিবীর সঙ্গে সামঞ্জস্য বিধান করার ক্ষমতা অর্জন।সমাজ তথা পৃথিবী পরিবর্তনশীল।পরিবর্তনশীল পৃথিবীর সঙ্গে সামঞ্জস্য বিধানের জন্য প্রয়োজন যুগোপযোগী শিক্ষার।বিজ্ঞান,তথ্য ও প্রযুক্তির যুগে শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নে শিক্ষার সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে ইন্টারনেট,ওয়াই-ফাই ওয়েবসাইটসহ নানা বিষয়। এ সব বিষয় ছাড়া বর্তমানে শিক্ষা অসম্পূর্ণ।এ গুরুত্ব অনুধাবন করেই রাণীভবানী সরকারি মহিলা কলেজ উদ্যোগ নিয়েছে কলেজের একটি শক্তিশালী ওয়েব সাইট স্থাপনের।আমি এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।এতে শিক্ষার্থীরা অতি সহজেই অল্প শ্রমে,ঘরে বসেই কলেজের নানা তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে,পারবে কলেজের নানা কার্যক্রমে সমপৃক্ত হতে।যেমন- ভর্তির আবেদন,ভর্তির কার্যক্রম,ফলাফল জানা,পরীক্ষার তারিখ,আসন বিন্যাস ইত্যাদি।প্রকৃতপক্ষে এ ধরনের ব্যবস্থায় উপকৃত হবেন শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক,কর্মচারী সকলেই,উপকৃত হবে পরিবার,সমাজ,রাষ্ট্র সবাই।আর এধরনের উদ্যোগের মাধ্যমেই সম্ভব ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন।ওয়েব সাইটের সঙ্গে সমপৃক্ত হয়ে এ কলেজের শিক্ষার্থীরা নিজেদেরকে যোগ্য,দক্ষ ও উপযুক্ত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলে এ দেশকে প্রকৃত সোনর বাংলা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে এটি আমি দৃঢ়ভাবে প্রত্যাশা করি।

প্রফেসর মো. খাদেমুল ইসলাম
উপাধ্যক্ষ
রাণী ভবানী সরকারি মহিলা কলেজ